গসিপ

“রাজা গজা” খ্যাত অভিনেতা কুনাল মিত্র মাত্র ৪৪ বছর বয়সেই প্রাণ ত্যাগ করেন! এত ট্যালেন্টের একজন অভিনেতা কে টলিউডের এখন আর মনে করাও হয় না

অভিনেতা কুনাল মিত্র, এক সময় বাংলার অভিনয় জগতের বেশ পরিচিত নাম ছিলেন তিনি। কিন্তু বর্তমানে বাংলার চলচ্চিত্র জগত মনে রাখিনি এই অভিনেতাকে। ছোট পর্দা থেকে বড় পর্দায় অবাধ বিচরণ ছিল এই অভিনেতা। ঋতুপর্ণা সেনগুপ্ত, দেবশ্রী রায়, ইন্দ্রানী হালদার, শ্রীলেখা মিত্রদের মত বড় বড় অভিনেত্রীদের সাথে দাপিয়ে কাজ করেছেন একটা সময় এই অভিনেতা। সেই সময় নিজের অভিনয় দক্ষতার জন্যই টলিপাড়ায় বেশ ভালই নাম কামিয়ে ছিলেন অভিনেতা। কিন্তু বর্তমানে এই অভিনেতাকে আর কেউ মনে রাখেনি।

১৯৬৫ সালে ৩০ শে এপ্রিল কলকাতাতে জন্ম গ্রহণ করেন অভিনেতা। তাঁর আসল নাম ছিল বাসক মিত্র। ১৯৯৪ সালে আলফা বাংলার সিরিয়াল “এবার জমবে মজা” এর হাত ধরে অভিনয় জগতে পদার্পণ শুরু করেন তিনি। টলিউডের সুদর্শন অভিনেতা খুব অল্প সময়ের মধ্যেই নিজের ক্যারিয়ারের থেকে সরে যান। মাত্র ৪৪ বছর বয়সে শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন এই অভিনেতা। অভিনেতার করা প্রত্যেকটি অভিনয় এখনো দর্শকের হৃদয়ে জায়গা করে রেখেছে। অভিনেতা কে নিয়ে কোন খোঁজ খবর রাখেনি টলিউড।

জানা গিয়েছে অভিনেতা কুনাল মিত্র পরিচালক দেবকী কুমার বসুর নাতি। অভিনেতা সেই সময় জনপ্রিয় অভিনেতাদের একজন বলে গণ্য হতেন। সুদর্শন অভিনেতার সাথে সাথে তাঁকে দুঃখ অভিনেতা হিসেবে গণ্য করা হতো। তাঁর অভিনয় দক্ষতার জেরেই টলিউডের ধীরে ধীরে বাড়তে থাকে তাঁর জনপ্রিয়তা এবং চাহিদা। সেই কারণেই টেলিভিশনের পর খুব বেশি সময় লাগেনি বড় পর্দার ডাক আসতে।

বড় পর্দায় ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তর বিপরীতে “আলো” ছবিতে অভিনয় করতে দেখতে পাওয়া যায় অভিনেতাকে। আর এটা তাঁর অভিনয় জগতের অনেক বড় একটি কৃতিত্ব। এছাড়া ঋতুপর্ণা এবং কুনাল “সংশয়” ছবিতেও একসাথে অভিনয় করেন। এছাড়াও “নেতাজি সুভাষ”, “জাহাঙ্গীরের স্বর্ণ মুদ্রা”, “কৃষ্ণকান্তের উইল”, “আপন হল আপন”, “যুগান্ত”, “ফেরারি ফৌজ”, “রাঙ্গামাটি” ইত্যাদি বিভিন্ন সিনেমা রয়েছে এই জনপ্রিয় অভিনেতার ঝুলিতে। টেলিভিশনেও তাঁর অভিনীত জনপ্রিয় একটি ধারাবাহিক হলো “রাজাগজা”।

তবে “ছ-এ ছুটি” তে কুনাল মিত্রকে বড় পর্দায় শেষবারের মত অভিনয় করতে দেখতে পাওয়া যায়। তারপরে তিনি অভিনয় করতেন ছোট পর্দার “উৎসবের রাত্রি” নামক একটি ধারাবাহিকে। এর মধ্যেই ইন্দ্রপুরী সেটে শুটিং চলাকালীন আচমকাই একদিন হৃদরোগে আক্রান্ত হন অভিনেতা। তখনই তাঁর মৃত্যু হয়। এই ঘটনার প্রায় ১৩ টি বছর। এখনো অভিনেতার সহকর্মীরা তাঁকে তাঁর মৃত্যুদিনে স্মরণ করেন। অভিনেতা ভাস্কর ও কুনাল মিত্রের মৃত্যুবার্ষিকীতে তাঁর ছবি শেয়ার করে শ্রদ্ধা জানিয়েছিলেন। অভিনেতা কুনাল মিত্র সম্পর্কে বলতে গিয়ে অভিনেত্রী শ্রীলেখা বলেছিলেন, “১৩ বছর হয়ে গেল, কুনাল নেই, ইন্ডাস্ট্রির মনে নেই। আমিও কাল মরলে পরশু সবাই ভুলে যাবে।”

Related Articles

Back to top button