ভাইরাল ভিডিও

পর্দার ভিলেনই বাস্তবে সাধারণ গরিব মানুষদের হিরো, সোনু সুদের সাহায্যের গল্প সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাগ করে নিল বিহারের এক বাসিন্দা

অভিনেতা সোনু সুদ, যাকে আমরা টিভির পর্দায় ভিলেন হিসেবে দেখি তিনি হলেন আমাদের আসল জীবনের হিরো। করোনা পরিস্থিতি কালে হাজার হাজার মানুষের পাশে এসে দাঁড়িয়েছিলেন তিনি। টিভির ওপারে তো আমরা অনেক হিরো কেই দেখি, কিন্তু রিয়েল লাইফের আমরা এরকম কঠিন সময় কজন হিরোকে পাশে আসতে দেখি? সোনু সুদ আমাদের সেই সত্তিকারের রিয়েল লাইফের হিরো।

গত বছর থেকেই করোনা দুর্যোগকালে সোনু একেক সময় একেক রূপে দেখা দিয়েছেন সাধারণ মানুষের কাছে। বেড অ্যারেঞ্জ করা থেকে শুরু করে অক্সিজেন এবং সমস্ত কিছুর দায়িত্ব তিনি নিজের হাতে তুলে নিয়েছিলেন। নিজে দাঁড়িয়ে থেকে সমস্ত কাজগুলি তিনি করেছেন। বর্তমানে সোনু একটি অক্সিজেন প্লান্ট তৈরি করার কাজে রয়েছেন।

এছাড়াও, সোনু সম্প্রতি কোভিড -১ লকডাউনের সময় অভিবাসী শ্রমিকদের সাহায্য করার বিষয়ে তার অভিজ্ঞতা বর্ণনা করে একটি বই প্রকাশ করেছেন। যার নাম ‘Am No Messiah’। বইটি অভিনেতা নিজেই লিখেছেন, সাহায্যের হাত বাড়ানোর সময় তিনি যে মানসিক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছেন তা প্রকাশ করেছেন।

মহামারী কালে দুঃস্থ ছাত্র-ছাত্রীদের পাশেও সোনু দাঁড়িয়েছেন। করোনা পরিস্থিতি কালের যাদের পড়াশোনা বন্ধ হয়ে গিয়েছে, আর্থিক কারণে যারা পড়াশোনা করতে পারছে না তাদের কাছেও ও সোনু বিশেষভাবে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন। এককথায় তিনি এখন সকল সাধারণ মানুষের কাছে রিয়েল লাইফের হিরো।

সম্প্রতি প্রিয়াঙ্কা নামের এক বিহারের বাসিন্দার একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে। সেই ভিডিওটিতে প্রিয়াংকা কে বেশ কিছু কথা বলতে শোনা গিয়েছেন সেখানে তিনি জানিয়েছেন ‘এটা তো বিহার। এখানে মহিলাদের জায়গা রান্না ঘরেই। তাই এখানকার মেয়েরা নিজের পায়ে দাঁড়ানোর জন্য এগোতে পারে না।

আসলে তাদের এগোতে দেওয়া হয় না’ এছাড়াও প্রিয়াঙ্কা জানান ‘পাটনা জুড়ে ছড়িয়ে ছিটিয়ে রয়েছে অসংখ্য অবৈধ দোকান যেখানে ব্যবসা চলছে, মদ বিক্রি হচ্ছে কিন্তু সেটা কারো নজরে পড়ে না. কিন্তু যখন একটা মেয়ে ব্যবসা করে নিজের পায়ে দাঁড়াতে চাইলো তখনই সমস্যা তৈরি হলো’। তাই বিহারে প্রশাসনের বিরুদ্ধে প্রিয়াঙ্কার প্রশ্ন ছিল ‘আমার কাজ কি শুধু রান্না করা? ঘর মোছা, বিয়ে করে সংসার করা, ব্যবসা করার কোন অধিকার নেই আমার’?

এরকম হাজার হাজার প্রিয়াঙ্কার দিকে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছেন সনু। নিজের সাধ্যমত তাদের বিপদের দিনে পাশে এসে দাঁড়িয়েছেন। তাদের জীবনের হিরো হয়ে দাঁড়িয়েছেন তিনি। বারবারই নিজের সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দিয়েছে তাদের দিকে।

Related Articles

Back to top button